জেলা পরিষদ

জেলা পরিষদ ভবনের ছাদ ধসে নিহত ২, উদ্ধার অভিযান চলছে

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্প্রসারিত ভবনের নির্মাণাধীন ছাদ ধসে পড়ে ২ নির্মাণ শ্রমিক নিহত ও ৭ জন আহত হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে আরো কয়েকজন।

নিবার ৮ অক্টোবর বিকাল পৌনে ৪টার দিকে জেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে ছাদের ধালাই চলাকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় ছাদের নিচে আটকা আছেন আরও কয়েকজন। তাদের উদ্ধারে কাজ করছে সেনাবাহিনী ও ফায়ার সাভিসের কর্মীরা।

নিহত ব্যক্তির নাম সাজ্জাদ (১৭)। আরেকজনের পরিচয় জানা যায়নি। আহতরা হলেন- মো. রোকন (৩৮), মো. হাসান (২৪), মো. হানিফ (২৫), মো. হানিফ (২৭)৷ মো. সোহেল (২৩)।

বিকাল পৌনে ৪টা। খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্প্রসারিত ভবনের সামনের অংশের ছাদ ধালাইয়ে ১৬ জন শ্রমিক কাজ করছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শরা জানায় কাজ চলাকালে হঠাৎ ধসে পড়ে ছাদ। আটকা পড়ে শ্রমিকরা। তাৎক্ষণিক সেনাবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ৯ শ্রমিককে উদ্ধার করে হাসপাতালের নেয়ার পর সাজ্জাদ হোসেন নামে এক শ্রমিক মারা যায়।

সন্ধ্যা ৭ টার দিকে ছাদের নিচ থেকে আরো এক জনের লাশ উদ্বার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন খাগড়াছড়ি সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আরিফ হোসেন।

আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশংকাজনক জনক। ধসে পড়া ছাদের নিচে আরো শ্রমিক আটকে রয়েছে। তবে তাদের ভাগ্যে কি ঘটেছে জানা যায়নি।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য বাসন্তি চাকমা, জেলা পরিষদ সদস্য কল্যাণ মিত্র বড়ুয়াসহ জনপ্রতিনিধি।

ঘটনা তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ সদস্য কল্যাণ মিত্র বড়ুয়া।

উদ্বার অভিযানে নেতৃত্বদানকারী মেজর মো. রিয়াদুল ইসলাম জানান, আরো কয়েক জন শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছে। সবাইকে উদ্ধার না করা পর্যন্ত অভিযান চলবে।

ঘটনার পর সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার বা জেলা পরিষদের দায়িত্বশীল কোনো কর্মকর্তাকে হাসপাতাল ও ঘটনাস্থলে পাওয়া যায়নি।

সন্ধ্যায় খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু ঘটনাস্থলে পৌঁছে সংঘটিত ঘটনাকে দুঃখজনক আখ্যায়িত করে বলেন, যেই জড়িত থাকুক তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভয়েসনিউজ/এনএন

শেয়ার করুন: