samantha

বিরল রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন তারকারা

বিনোদন ডেস্ক:

ইদানিং সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী বিভিন্ন নামকরা তারকারা বিরল রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। তারকাদের অসুস্থতার কথা শুনলে অনুরাগীদের কপালে চিন্তার রেখা স্পষ্ট হয়। দক্ষিণি সুপারস্টার সামান্থা রুথ প্রভুর বিরল রোগে আক্রান্ত হওয়ার সংবাদ থেকেই তা প্রমাণ পাওয়া গেছে। এরপর বলিউড তারকা বরুণ ধাওয়ান বিরল রোগে আক্রান্ত হওয়ার খবর জানা গেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদনে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এ তথ্য। এবার জানা গেল পপ গানের জন্য বিশ্বব্যাপী শ্রোতাদের জনপ্রিয় ব্রিটনি স্পিয়ার্স  বিরল রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

সামান্থা প্রভু

ভারতের দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা সামান্থা প্রভুর শরীরে মায়োসাইটিস নামের একটি রোগ বাসা বেঁধেছে। সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে নিজের বাম হাতের রক্তনালিতে ওষুধের নল লাগানো একটি ছবি প্রকাশ করে এ খবর নিজেই জানান তুমুল জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। ছবিটি প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই উদ্বেগ দেখা দিয়েছে সামান্থার সহকর্মী এবং ভক্ত-অনুরাগীদের মধ্যে।

নিজের পোস্টে অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘কয়েক মাস আগে আমার একটি অটো ইমিউন রোগ ধরা পড়ে। রোগটির নাম মায়োসাইটিস। ভেবেছিলাম, সুস্থ হওয়ার পরেই সে কথা জানাব। কিন্তু যা ভেবেছিলাম, সুস্থ হতে তার তুলনায় বেশি সময় লাগছে।’

বরুণ ধাওয়ান

‘ভেস্টিবুলার হাইপোফাংশন’ নামক এক বিরল রোগে আক্রান্ত বলিউড তারকা বরুণ ধাওয়ান। মস্তিস্কের একটি অংশ হচ্ছে ভেস্টিবুলার সিস্টেম। যেসব স্নায়ু শরীরের ভারসাম্য রক্ষা করে থাকে সেগুলো নিয়ন্ত্রণ করে এই অংশ। এই ভেস্টিবুলার সিস্টেমে সমস্যা দেখা দিলেই এই রোগ দেখা দেয়। শরীর ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে। সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজের এই বিরল রোগের কথা বরুণ নিজেই জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আমি জানতাম না আমার সঙ্গে কী ঘটছে। আমার একটা সমস্যা দেখা দিয়েছে, যেটাকে বলে ভেস্টিবুলার হাইপোফাংশন। মূলত এই রোগে আপনার শরীরের ভারসাম্য বজায় রাখতে সমস্যা হয়। তার মধ্যেই আমি মারাত্মক পরিশ্রম করে ফেলেছি। কারণ আমরা সবাই দৌড়াচ্ছি, কেউ জানতে চাইছে না কেন। আমাদের সবার এখানে থাকার একটা নির্দিষ্ট কারণ আছে। আমি সেই কারণ খোঁজার চেষ্টা করছি। আশা করছি, মানুষ নিজেরটা খুঁজে নেবে।’

বরুণকে শেষ দেখা গেছে ‘যুগ যুগ জিও’ সিনেমায়। এতে তিনি ছাড়াও অভিনয় করেছলেন কিয়ারা আদভানি, নীতু কাপুর ও অনিল কাপুর। কমেডি ঘরানার এই ছবির পরিচালক ছিলেন রাজ মেহতা। বক্স অফিসেও বেশ সফলতা অর্জন করেছিল বরুণের ‘যুগ যুগ জিও’। বর্তমানে এই তারকা ব্যস্ত আছেন ‘ভেড়িয়া’ নামের একটি চলচ্চিত্রে।

ব্রিটনি স্পিয়ার্স

পপ গানের শ্রোতাদের নিকট এক উন্মাদনার নাম ব্রিটনি স্পিয়ার্স। কণ্ঠে সুরের মূর্ছনা তুলে তিনি বুঁদ করে রাখেন তাদের। বিশ্বজুড়ে তার অনুরাগীর অভাব নেই। এবার এই অনুরাগীদের জন্য রয়েছে একটি মন খারাপ করা সংবাদ। বিরল রোগে আক্রান্ত হয়েছেন ব্রিটনি। খবরটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তিনি নিজেই দিয়েছেন।

ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও প্রকাশ করে ব্রিটনি জানিয়েছেন, তার শরীরের ডানপাশের স্নায়ু ড্যামেজ হয়েছে। এর কোনো চিকিৎসা নেই বলেও লিখেছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে ব্রিটনি লিখেছেন, ‘আমার শরীর ডান দিকের স্নায়ু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সৃষ্টিকর্তা ছাড়া কেউই এটা ঠিক করতে পারবে না। কখনও কখনও মস্তিষ্কে ঠিক মতো অক্সিজেন না পৌঁছলে স্নায়ু ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আক্ষরিক অর্থেই মাথা কাজ করা বন্ধ করে দেয়। স্নায়ু ক্ষতিগ্রস্ত হলে শরীরে বেশ কিছু অঙ্গও অসাড় হয়ে যায়।’

এসময় এই পপ গায়িকা বলেন, ‘সপ্তাহে অন্তত তিন বার বিছানা থেকে উঠে দেখি হাত দুটো সম্পূর্ণ অসাড় হয়ে গেছে। স্নায়ুগুলো ছোট ছোট আর সেগুলো শরীরের ডানদিক থেকে গলা পর্যন্ত সুইয়ের মতো ফোটে এবং সবচেয়ে বেশি কষ্ট হয় মাথায়, যেটা ভয়ানক।’

চিকিৎসা শাস্ত্রে ব্রিটনির এই রোগের কোনো দাওয়াই নেই। তবে এই পপ সম্রাজ্ঞী নিজেই এর সমাধান খুঁজে পেয়েছেন। নাচকে এই রোগের প্রতিষেধক মনে করেন তিনি।

এ গায়িকা জানান, তিনি যখন নাচেন তখন ব্যথা অনুভব হয় না। বিরল রোগের এমন প্রতিষেধক খুঁজে পাওয়ায় সৃষ্টিকর্তার কাছেও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

ভয়েসনিউজ/এনএন

শেয়ার করুন: