‘নমনীয়তা নয়, গণতান্ত্রিক চরিত্রের কারণে বিএনপির গণমিছিলের তারিখ পরিবর্তন’

‘নমনীয়তা নয়, গণতান্ত্রিক চরিত্রের কারণে বিএনপির গণমিছিলের তারিখ পরিবর্তন’

নিজস্ব প্রতিবেদক :

কারও প্রতি নমনীয়তা নয়, গণতান্ত্রিক চরিত্রের কারণে বিএনপির গণমিছিলের তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ তাদের জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে আমাদের অনুরোধ করেছে বা আহবান জানিয়েছে মিডিয়ার মাধ্যমে। বিএনপিও কোনো সংঘাত চায় না। বিএনপির গণতান্ত্রিক চরিত্র হিসেবে গণমিছিলের তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। এটা কারও প্রতি নমনীয়তা নয়।

১৮ ডিসেম্বর রোববার রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে খন্দকার মোশাররফ এসব কথা বলেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, বিএনপি মধ্যপন্থি একটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। অতীতেও ক্ষমতায় থাকাকালে বিএনপি তার গণতান্ত্রিক চরিত্র দেখিয়েছে। ভবিষ্যতেও দেখাবে। আমরা মতপ্রকাশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি।

নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ে পুলিশের অভিযানে অর্ধকোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে দাবি করে তিনি বলেন, পুলিশ নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে চাল উদ্ধারের কথা বলেছে। এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা। মামলার এজাহারেও চালের কথা নেই।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও আশপাশে অনির্বাচিত গণবিরোধী সরকারের নির্দেশে বিভিন্ন বাহিনীর যে নির্মম নিষ্ঠুরতা ও বর্বর আচরণ দেশবাসী তা প্রত্যক্ষ করেছেন। এ ঘটনা শুধু বিজয়ের মাসকে কলঙ্কিত করেনি, গণতন্ত্র হত্যাকারী ও বারবার গণতন্ত্র হত্যায় সহায়তাকারী ক্ষমতাসীন অবৈধ সরকারের অগণতান্ত্রিক, কর্তৃত্ববাদী ও গণবিরোধী পরিচয় উৎকটভাবে পুনরায় প্রকাশ করেছে।

বিএনপির যুগপৎ আন্দোলনে জামায়াতে ইসলামী রয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা কতিপয় দাবি নিয়ে যুগপৎ আন্দোলনে নামার জন্য সব গণতান্ত্রিক দল, প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির প্রতি আহ্বান জানিয়েছি। আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো আমাদের যুগপৎ আন্দোলন শুরু হয়নি। কাজেই এখন বলা যাবে না কে আছে বা কে নেই।’

শেয়ার করুন: