পুলিশের কার্যক্রমে ব্যাপক গতি এসেছে : আইজিপি

পুলিশের কার্যক্রমে ব্যাপক গতি এসেছে : আইজিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক :

তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে পুলিশের কার্যক্রমে ব্যাপক গতি এসেছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন।

তিনি বলেছেন, একসময় পুলিশের তদন্ত ছিল সোর্স নির্ভর। এখন তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে প্রায় ৯০ ভাগ মামলার রহস্য উদঘাটিত হচ্ছে। একইসঙ্গে পুলিশের কার্যক্রমে এসেছে ব্যাপক গতি।

২৪ ডিসেম্বর শনিবার রাজধানীর রাজারবাগে বাংলাদেশ পুলিশ অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ অফিসার্স কল্যাণ সমিতির (বিআরপিওডব্লিউএ) ৩৯তম বার্ষিক সাধারণ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, বাংলাদেশ পুলিশকে একটি পেশাদার বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের অনন্য অবদান রয়েছে। তারা তাদের মেধা, মনন এবং শ্রম দিয়ে বাংলাদেশ পুলিশকে তিলে তিলে গড়ে তুলেছেন। অবসর গ্রহণের পরও তারা বাংলাদেশ পুলিশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার লক্ষ্যে বিভিন্ন ধরনের সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন।

তিনি বলেন, আপনারা চাকরি জীবনে অক্লান্ত শ্রম দিয়ে দেশের সেবা করেছেন, এখন অবসরের পরও ক্লান্তিহীনভাবে সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের কল্যাণে বিশেষ করে শিশুদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

সমিতির সমাজসেবামূলক বিভিন্ন কার্যক্রম বিশেষ করে মেস বয়দের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়ানোর উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন আইজিপি।

সভায় সমিতির পাঁচ জন বয়োজ্যেষ্ঠ সদস্যকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। কমিউনিটি পুলিশিং ও সমাজসেবামূলক কার্যক্রমে বিশেষ অবদানের জন্য কর্মরত ৩ পুলিশ কর্মকর্তাকে এস এম আহসান স্মৃতি পুরস্কার এবং নির্যাতনের শিকার নারী ও শিশুর সুরক্ষায় ভিকটিম সাপোর্ট কার্যক্রমে বিশেষ অবদানের জন্য একজন নারী পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রফেসর এনামুল হক লিলি-ড. এম এনামুল হক পুরস্কার প্রদান করা হয়।

এছাড়া, পুলিশ পরিবারের সন্তানদের মধ্যে এসএসসি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল অর্জনকারী ৪২ জন্য মেধাবী শিক্ষার্থীকে সমিতি পরিচালিত ‘মরহুম মহীউদ্দিন আহমদ চৌধুরী-এম সহীদুল ইসলাম চৌধুরী শিক্ষা বৃত্তি এবং এইচএসসি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল অর্জনকারী ১৪ মেধাবী শিক্ষার্থীকে সমিতির ‘এম এন ভক্ত-শিপ্রা ভক্ত শিক্ষা ফান্ড’ ও কেসি মল্লিক-মায়া শিক্ষা ফান্ড থেকে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করা হয়।

শেয়ার করুন: